ধীরে ধীরে কুমিল্লায় বাড়ছে আক্রান্তের হার।

প্রতিবেদক || নোমান হোসাইনঃ

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী বিভাগের এক ডাক্তারসহ হাসপাতালের ৭ জন নার্স ও ক্লিনার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

গত ২০ মে কুমিল্লা শহরের বজ্রপুরের ইউসুফ স্কুলের পূর্বপাশের বাসায় লক্ষণ উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া বিশিষ্ট সিমেন্ট ব্যবসায়ী আবদুল কুদ্দুসের পরিবারের সবাই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারা বর্তমানে সদর দক্ষিণের হেমজুরা গ্রামে রয়েছেন। ঐ ব্যবসায়ীর জানাজায় অংশ নেওয়া, পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে যারা মিশেছেন তারা সতর্কতা অবলম্বন করুন। শহরের বজ্রপুরের ঐ ভবনের কারো লক্ষণ উপসর্গ থাকলে পরীক্ষা করুন।

কুমিল্লা শহরের ঝাউতলা সিভিক ভবনের একজন করোনায় আক্রান্ত। শহরে চকবাজারের এক নারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

কুমিল্লা জেলায় সব মিলিয়ে ৩৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। এর মধ্যে মুরাদনগরের ১৬ জন, আদর্শ সদরের একজন, সদর দক্ষিণের ৫ জন (বজ্রপুরেরসহ), মনোহরগঞ্জের ২ জন, বুড়িচংয়ের একজন, চৌদ্দগ্রামের একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।