ইফতার সামগ্রী বিতরণ করে রমজানের শুভেচ্ছা জানালেন মিমি।

প্রতিবেদক || মুজাহিদ হাসানঃ

বিশ্ব জুড়ে করোনা আতংক। তার মধ্যে শুরু হয়েছে রমজান। লকডাউনের সময় এক জোট হয়ে ইফতার আর সম্ভব নয়। এই পরিস্থিতিতে আবার নতুন ভাবে উদ্যোগী হলেন অভিনেতা, সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। রাজপুর আর সোনারপুর এলাকার যে সব মানুষের সঙ্গে গত বছরও একসঙ্গে বসে ইফতার করেছিলেন তাঁদের কাছে পৌঁছে গেলেন মিমি। এই প্রথম কোনও সাংসদ লাইভ স্ট্রিমিং-এ তাঁর কাছের মানুষদের সঙ্গে কথা বললেন। ‘‘প্রত্যেক বার রমজানের সময় ওই এলাকার মানুষের কাছে পৌঁছে যাই। কথা বলি। একসঙ্গে খাই। রমজান আসতেই মনে হচ্ছিল, কী করি? আমার দক্ষ অফিসের টিম প্রস্তুত হয়ে গেল। ইফতারের সামগ্রী পাঠালাম আর ওদের ফোনে বা ল্যাপটপে সরাসরি অসুবিধের কথা জানতে পারলাম’’, বললেন মিমি।

একটি বিশেষ কোডের মাধ্যমে সোনারপুর, রাজপুর অঞ্চলের মানুষের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেন তিনি। তাঁদের প্রিয় সাংসদের সঙ্গে কথা বলতে পেরে ও ইফতারের সামগ্রী পেয়ে মানুষও আজ খুশি। করোনা সম্পর্কে রাজ্য সরকারের নিয়মাবলীর কথাও স্মরণ করিয়ে দেন মিমি।

কখনও বা ‘চা কাকু’-র মতো মানুষের সারা জীবনের দায়িত্ব নিচ্ছেন তিনি। লাঙলবেড়িয়া গোবিন্দপুরের কাছে আনন্দ ঘর ফাউন্ডেশনে এর কিছু বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু এবং এইচআইভি পজিটিভ শিশুদের মুখে নববর্ষের দিনে হাসি ফুটিয়েছিলেন মিমি। নববর্ষে মোট ১২০ জন শিশুর জন্য জামাকাপড় ও খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন তিনি।