ইরফান স্মরণে পাল্টে গেল গ্রামের নাম।

প্রতিবেদক || নোমান হোসাইনঃ

বলিউড অভিনেতা ইরফান খানের মৃত্যুর শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি বিনোদন অঙ্গন। ভক্তরা এখনো ভাবতেই পারছেন না, তাকে আর দেখা যাবে না, পর্দায় নতুন কোনো চরিত্র নিয়ে মন ভরাবেন না। এটা শুধু ব্যক্তিগত ক্ষতিই নয়, সামষ্টিক ক্ষতিও। তার প্রমাণ মিলল একটি উদ্যোগে।

মহারাষ্ট্রের ইজতপুরি গ্রামের মানুষ ইরফান খানকে চিরস্মরণীয় করে রাখতে একটি এলাকার নামই পাল্টে দিলেন। এই অভিনেতা গ্রামবাসীদের বিপদে এগিয়ে যেতেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠান-পর্বে তাদের পাশে দাঁড়াতেন। সুবিধাবঞ্চিত গ্রামবাসীকে যথাসাধ্য সাহায্য করতেন ইরফান। গ্রামবাসী তাকে ‘অভিভাবক দেবদূত‘ ডাকতেন।

ইজতপুরিতে ইরফান খান একটি প্লট কিনেছিলেন। সেখানে তাঁর খামারবাড়ি রয়েছে। গ্রামবাসীর সঙ্গে খুব ভালো সম্পর্ক ছিল ইরফানের।

গ্রামের সুবিধাবঞ্চিত প্রান্তিক মানুষের জন্য ইরফান খান নিজের সাধ্যমতো সাহায্যের চেষ্টা করতেন। ওই গ্রামে ইরফান অ্যাম্বুলেন্স, কম্পিউটার, বই, রেইটকোট, বাচ্চাদের জন্য সোয়েটার দিয়েছেন। বিভিন্ন উৎসবে গ্রামবাসীর জন্য মিষ্টি পাঠাতেন। গ্রামবাসীও তাঁকে ভুলতে পারছেন না। একটি এলাকারই নাম বদলে দিলেন, তার পাশেই ইরফানের খামারবাড়ি অবস্থিত। এখন থেকে ওই এলাকার নাম ‘হিরো-চি-বাড়ি‘, মারাঠি ভাষা থেকে বাংলায় অনুবাদ করলে দাঁড়ায় ‘নায়কের প্রতিবেশী‘।

এক দশক আগে নাসিকের পাশের গ্রাম ইজতপুরিতে একটি প্লট কেনেন ইরফান খান। এরপর থেকে গ্রামবাসীর সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন তিনি। তাঁকে স্মরণ করে এলাকার নাম পাল্টাল গ্রামবাসী।