করোনা নিয়ে ছবির পরিকল্পনা।

প্রতিবেদক || মুজাহিদ হাসানঃ

হলিউড বহু বারই প্যানডেমিককে সিনেমার বিষয়বস্তু হিসেবে ব্যবহার করেছে। বলিউডে এই ধারা দেখা যায়নি। করোনাভাইরাসের আতঙ্কের পরিস্থিতিতে প্রশ্ন ছিল, এ বিষয় নিয়ে কি বলিউডে কাজ হবে? জানা যাচ্ছে, পরিচালক আনন্দ গাঁধী মহামারী নিয়ে একটি ছবি করতে চলেছেন। ‘শিপ অব থেসিয়াস’, ‘তুম্বড’-এর মতো অন্য ধারার ছবি করিয়ে আনন্দ নাকি গত পাঁচ বছর ধরে তার প্যানডেমিক মুভি নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছেন। ‘ইমার্জেন্স’-এর চিত্রনাট্যও মোটামুটি প্রস্তুত ছিল। কিন্তু চোখের সামনে করোনার এই দাপট এবং বদলে যাওয়া পরিস্থিতিতে আনন্দও তার লেখায় বদল আনছেন।

পরিচালকের কথায়, ‘‘মহামারি কী এবং তার ফলে কী কী হতে পারে, এ সব নিয়েই আমার আগের স্ক্রিপ্ট ছিল। কিন্তু করোনা আমাদের হাতনাতে বুঝিয়ে দিয়েছে, মহামারি কী ভীষণ বস্তু এবং তার সামনে আমরা কতটা অসহায়। সেই মতো লেখায় বদল এনেছি। কাল্পনিক পরিস্থিতির বদলে আমি বাস্তব ঘটনা তুলে আনতে পারি এখন।’’ আনন্দের পুরনো চিত্রনাট্য অনুযায়ী ‘ইমার্জেন্স’-এর সময়কাল ছিল ২০২০। এ বার তিনি বিষয়টি ২০২৫ সালে নিয়ে যাচ্ছেন। ছবির জন্য প্রথম থেকে পরিচালকের মাথায় ছিল ইরফান খানের নাম। ‘‘অনেক দিন লাগল বিষয়টা বাস্তবায়িত করতে। তার মধ্যে যে ইরফান আমাদের এ ভাবে ফাঁকি দিয়ে চলে যাবেন ভাবিনি,’’ আক্ষেপের সুর আনন্দের গলায়। এখন প্রধান চরিত্রে সুশান্ত সিংহ রাজপুতকে নেওয়ার কথা ভাবছেন তিনি। চারজন বলিষ্ঠ অভিনেত্রী চান, মহিলা চরিত্রের জন্য। আনন্দের আশা এ বছরের শেষে তিনি ছবির শুটিংয়ের কাজ শুরু করতে পারবেন।