অভিনন্দনের ফুলেও কঙ্গনাদের কাঁটা। প্রতিবেদন ।।

মুন্সী নাইম রেজভী:

আলিয়া ভাটকে রীতিমতো নোংরা কথা বলেছেন কঙ্গনা। ‘করণ জোহরের হাতের পুতুল’ থেকে শুরু করে ‘গালি বয়’ ছবিতে ‘ছাইয়ের অভিনয় করেছে’, ‘বলিউডের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ওভার রেটেড তারকা’সহ নানা কথা। ঝগড়াটে কঙ্গনাকে সারা ভারতবর্ষের চেনা। কখনই তাঁর কথা গায়ে মাখেননি আলিয়া। সম্প্রতি সেসব কটু কথার প্রতিদান হিসেবে কঙ্গনাকে একতাড়া ফুল পাঠিয়েছেন আলিয়া ভাট। সেই ফুলে কাঁটা ছিল কি না, তা জানা না গেলেও কঙ্গনারা প্রতিদানে কাঁটা দিয়েছেন আলিয়াকে।

বলিউডের মুখরা রমণী হিসেবে নামডাক আছে কঙ্গনার। যেকোনো সামাজিক ও রাজনৈতিক ইস্যুতে কিছু না কিছু মন্তব্য তাঁকে করতেই হয়। তাতেই তিনি চলে আসেন আলোচনায়। অন্যদিকে আলিয়া ভাট পণ করেছিলেন, কোনো বিতর্কে জড়াবেন না। সেটা নিয়েও মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন কঙ্গনা। এমনকি একটি পুরস্কারের নাম ঘোষণার সময় মনোনয়নে আলিয়া ভাট ও কঙ্গনা রনৌতের নাম ছিল। পুরস্কারের সম্ভাবনার কথা জানতে চাইলে আলিয়া বলেছিলেন, ‘কঙ্গনা আমার কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী।’ এ কথা শুনে অস্বস্তিতে পড়েছিলেন কঙ্গনা। বলেছিলেন, ‘সে কীভাবে নিজেকে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবল! শুনে আমার অস্বস্তিই হয়েছে বৈকি।’ যদিও পুরস্কারটি আলিয়াই জিতেছিলেন।
কঙ্গনা রনৌত।
আছে আরও ঘটনা। কঙ্গনা রনৌত বলেছেন, ‘সে (আলিয়া) যদি কেবল অর্থ উপার্জনের জন্য কাজ করে, সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে নিজের অবস্থান জানান না দেয়, তাহলে তার সফলতার কোনো মানে থাকবে না। এটা তারকা হিসেবে তার দায়িত্ব। আশা করি, সে নিজেকে শুধরে নেবে।’

অন্যদিকে কঙ্গনার সঙ্গে পাঙ্গা নেওয়ার চেয়ে চুপ থাকাই মঙ্গল বলে মনে করেছেন আলিয়া কিংবা কটু কথাকে পাত্তাই দেননি। এসব নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে হাসিমুখে বলেছেন, ‘তিনি (কঙ্গনা) অভিনেত্রী হিসেবে দুর্দান্ত। বাদবাকি বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই না।’এই ফুলের তোড়াটি কঙ্গনাকে উপহার দিয়েছেন আলিয়া।
এই ফুলের তোড়াটি কঙ্গনাকে উপহার দিয়েছেন আলিয়া।
সম্প্রতি ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পদ্মশ্রী পেলেন কঙ্গনা। এতে তাঁকে অভিনন্দিত করে একগুচ্ছ ফুল উপহার দিয়েছেন আলিয়া ভাট, সঙ্গে একটি চিরকুটে ছোট্ট করে লেখা, ‘পদ্মশ্রীর জন্য অভিনন্দন ও শুভকামনা। ইতি, আলিয়া ভাট।’ অন্যদিকে কঙ্গনার বোন রঙ্গলি চণ্ডাল সেই বাহারি রঙের ফুলের তোড়ার ছবির সঙ্গে হার্টের ইমোজি দিয়ে লিখেছেন, ‘সবাই দেখুন, কঙ্গনাকে ফুলের তোড়া পাঠিয়েছে আলিয়া। কঙ্গনার কেমন লাগছে বলতে পারছি না। তবে আবার কিন্তু বেশ লাগছে।’

আলিয়া ভাট চুপ থাকাই শ্রেয় মনে করেছেন।
আলিয়াকে ইঙ্গিত করে এসব মন্তব্য ভালোভাবে নেননি তাঁর ভক্তরা। কেউ লিখেছেন, ‘কেউ বন্ধুত্বের হাত বাড়ালে তাঁকে ন্যূনতম সম্মান করা উচিত।’ কেউ বা লিখেছেন, ‘আপনি আজীবন এমন খারাপ থেকে যাবেন রঙ্গলি? আলিয়া আপনার চেয়ে ঢের ভালো, তাঁর মন অনেক বড়। একটু ভালো হতে চেষ্টা করুন।’

রঙ্গলি এসব উপদেশ গায়ে মাখার মানুষ নন। খেপে গিয়ে আরও উল্টোপাল্টা টুইট করে লিখেছেন আরও কত কী! যদিও সেগুলোর কোথাও আলিয়ার নাম নেননি। তবে সেসব বাক্য যে তাঁকে ইঙ্গিত করেই লেখা, সেটা ভক্তরা বুঝে নিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘মানুষকে বোকা ভাববেন না। তারা দেখে যে কে একা দাঁড়িয়ে লড়াই করছে, আর কে “মুভি মাফিয়া”দের পেছন পেছন ঘুরছে। এখন সময় সততার।’