ফিলিস্তিনিদের ঘর-বাড়ি ভাঙছে ইসরাইল

বিক্ষোভ–প্রতিরোধ ও আন্তর্জাতিক সমালোচনাকে উপেক্ষা করে ফিলিস্তিনি বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিচ্ছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। অধিকৃত পশ্চিম তীরে সোমবার ভোর থেকে কয়েকশ ইসরাইলি সেনা ও বুলডোজার বাড়ি ভাঙতে শুরু করে। ইসরাইলের সীমান্ত দেওয়ালের জন্য হুমকির দোহাই দিয়ে নিরীহ ফিলিস্তিনিদের বসতি ভেঙে ফেলা হচ্ছে।

জানা গেছে, ইসরাইলি সেনারা পশ্চিম তীরের ১৬টি আবাসিক ভবনকে তাদের টার্গেট বানিয়েছে। যাতে একশর বেশি পরিবার বাস করে। ইসরাইল যেখানে দেয়াল নির্মাণ করে নিজস্ব ভূখণ্ডের সীমানা নির্ধারণ করেছে সেই দেয়ালের পার্শ্ববর্তী এই বাড়িগুলো। ইসরাইল বলছে, এই বাড়িগুলো তাদের সীমান্ত দেয়ালের জন্য নিরাপত্তা হুমকি। পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুসালেমের মধ্যবর্তী দেয়ালটির কাছে ওই বাড়িগুলো। সোমবার সকাল ৭টা থেকে ইসরাইল বাড়ি ভাঙার কাজ শুরু করে। ঘটনাস্থলে কোনও সাংবাদিক বা সাধারণ লোকদের কাছে যেতে দেয়া হচ্ছে না। তবে দূর থেকে বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে। উল্লেখ্য, ১৯৪৮-এর যুদ্ধে ইসরাইল ফিলিস্তিনের ৭৮ শতাংশ এলাকা দখল করে নিয়েছিল। ১৯৬৭-এর যুদ্ধে তারা পুরো ফিলিস্তিনই দখল করে। তারপর তারা ৭৭০ বছর ধরে বিদ্যমান মরোক্কান কোয়ার্টার পুরাপুরি ধ্বংস করে দেয়। সেখানে সব অধিবাসীকে বের করে দেয়। পশ্চিম তীরের কালকিলিয়া এবং তুল কারেম শহর ধ্বংস করে ১২ হাজার ফিলিস্তিনিকে বহিষ্কার করে ইসরাইল।