শ্রমিকলীগ নেতা পলাশ শো ডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছেন কাদিয়ানী বিরোধী সমাবেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক।। নাঈম হাসান।

কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণা করার দাবীতে নারায়ণগঞ্জে আয়োজিত সমাবেশে বিশাল শো ডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছেন শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ যিনি নিজেই নিয়মিত তাবলীগে ইসলামের দাওয়াত দেন।

১ ফেব্রুয়ারী শনিবার যোহরের নামাজের পরে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ওই সমাবেশ হয়েছে। সেখানে পলাশের নেতৃত্বে শো ডাউন হয়েছে। আলীগঞ্জ খেলার মাঠ হতে বাদ যোহর পলাশের নেতৃত্বে ওই মিছিল রওনা দিয়েছিল।

সংশ্লিষ্টদের মতে, কাদিয়ানিদের রাষ্ট্রীয় ভাবে অমুসলিম ঘোষণার জন্য বাংলাদেশে ব্যাপক আন্দোলনের পরিকল্পনা করছে আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফ্ফুজে খতমে নবুওয়্যাত বাংলাদেশ। এ আন্দোলনের অংশ হিসেবে প্রথমে বাংলাদেশের ৬৪জেলায় ৬৪টি মহাসম্মেলন করা হবে। এরপর ৬৪জেলার মুসল্লিদের নিয়ে মহাসম্মেলন করবে। এটাই হচ্ছে বাংলাদেশর সবচেয়ে বড় জমায়েত। এখান থেকেই আন্দোলনের সূচনা হবে।

সম্মেলন উপলক্ষ্যে চাষাঢ়া হতে মাসদাইরে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ পর্যন্ত ৬টি স্পটে থাকবে প্রজেক্টর। আয়োজকেরা আশা করছেন, ঈদগাহ মাঠে স্থান হবে না। জমায়েত ছড়িয়ে যাবে সড়কেও। চলে আসবে চাষাঢ়া ও বিপরীতে পঞ্চবটি পর্যন্ত। সেই লক্ষ্যেই তারা কাজ করে যাচ্ছেন।

হেফাজত আমীর আল্লামা শফি ছাড়াও থাকবেন হেফাজতে ইসলামীর মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজতে ইসলামীর ঢাকা মহানগরের সভাপতি নূর হোসাইন কাশেমী, সাইদুর রহমান, আব্দুল হামিদ, আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী, মিজানুর রহমান চৌধুরী, নূরুল ইসলাম জিহাদী, আবদুল্লাহ মুহাম্মদ হাসান, জুনায়েদ আল হাবীব, ইমাদুদ্দীন, আবদুল বারী, আশরাফ আলী, আবদুল কুদ্দুস, তাফাজ্জুল হক, নূরুল ইসলাম ওলিপুরী, মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, আশেকে এলাহী, আব্দুল হাই মেশকাত, মুহাম্মদ ইসহাক, মামুনুল হক, নজরুল ইসলাম কাশেমী, ওবায়দুর রহমান খাঁন নদভী, মাহবুবুল হক কাশেমী, শফিকুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল, আবদুল কাদির, আবু তাহের জিহাদী প্রমুখ।