শ্রীলঙ্কায় রেকর্ড সংখ্যক হাতির মৃত্যু এক বছরে

প্রতিবেদক|| তমাল কিবরিয়া:

শ্রীলঙ্কায় বন্য অবস্থায় সাত হাজার ৫০০ হাতি আছে।
গত বছর শ্রীলঙ্কায় ৩৬১টি হাতির মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবেশবাদী গোষ্ঠীগুলো জানিয়েছে।

১৯৪৮ সালে শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার পর থেকে কোনো বছরই ২০১৯ সালের মতো এতো সংখ্যক হাতির মৃত্যু হয়নি।গত বছর যেসব হাতির মৃত্যু হয়েছে তাদের অধিকাংশই মানুষের হাতে নিহত হয়েছে। কারণ প্রত্যন্ত এলাকার গ্রামগুলোতে চড়াও হওয়া হাতির সঙ্গে প্রায়ই গ্রামবাসীদের সংঘর্ষ বেধে যায়। শ্রীলঙ্কায় হাতিকে ব্যাপক সম্মানের চোখে দেখা হয়, কিন্তু তারপরও কিছু কৃষক হাতিদের ফসলের ক্ষতিকারক প্রাণী হিসেবেই বিবেচনা করেন।
গ্রামগুলোতে হাতি প্রতিরোধ করার জন্য বৈদ্যুতিক বেড়া ব্যবহার করা হয়, হাতি মারার জন্য গ্রামবাসীরা খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে রাখে অথবা খাবারের ভিতরে বিস্ফোরক ঢুকিয়ে রাখে।

সেপ্টেম্বরে একটি অভয়ারণ্যে সাতটি হাতিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। ফসলের ক্ষতি করায় স্থানীয় বাসিন্দারা এদের বিষ দিয়ে মেরেছে বলে সন্দেহ বন কর্মকর্তাদের।
বন কর্মকর্তারা স্থানীয় গ্রামীণ জনপদ ও হাতিদের আবাসস্থলের মধ্যে বেড়া তৈরি করে সমস্যা সমাধান করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।
কিন্তু পরিবেশবিদরা মনে করেন, অভয়ারণ্যগুলোর সুরক্ষার উন্নয়ন ঘটাতে সরকারের আরও পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।