শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়ে ম্যাচ ড্র।

রাফাতুল ইসলাম :

ক্রিকেটে খুব ভালো দিন যাচ্ছে না জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের ‌ । ঠিক এমন একটা মুহূর্তে শ্রীলংকার বিপক্ষে টেস্টে ড্র করায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে জিম্বাবুয়ে দলের মধ্যে । হারারেতে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১০ উইকেটে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ায় স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে ।
এই ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে । ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২১ রানে স্বাগতিকরা হারায় নিজেদের প্রথম উইকেট ‌। এরপর ১৩৩ রানের মাথায় চার টপ অর্ডারে পতনের পর পঞ্চম উইকেটে সিকান্দার রাজা কে সাথে নিয়ে ১৫৯ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক উইলিয়ামস ‌। এই জুটি ভাঙে দলের সংগ্রহ যখন ২৯২ সিকান্দার রাজা ফিরে যান ব্যক্তিগত ৭২ রান করে। এরপর শতক পূর্ণ করে ১০৭ রানে ফিরে যান অধিনায়ক উইলিয়ামসন, দলের সংগ্রহ তখন ৬ উইকেটে ৩২৪। এরপর আর বড় কোনো জুটি না হওয়ায় সবগুলো উইকেট এর বিনিময় ৪৯৬ রান তুলতে সক্ষম হয় স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে ‌।
জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৯৪ রানের ওপেনিং জুটি হলেও প্রথম উইকেট পতনের পর নিয়মিত গতিতে উইকেট পড়তে থাকে সফরকারী শ্রীলংকার। এরপর মাঝে ষষ্ঠ উইকেটে ম্যাথিউস, ধনাঞ্জয় ডি সিলভা কে নিয়ে ৮৪ রানের জুটি গড়লেও আর কোন জুটি হতে দেয়নি শ্রীলংকার। এতে করে ২৯৩ রানে অলআউট হয়ে যায় সফরকারীরা ।
ফলে ১১৩ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে । ব্রেন্ডন টেলরের ৬৭ এবং অধিনায়ক সেন উইলিয়ামসের ৫৩ রানের উপর ভর করে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ২৪৭ রানে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে।
ফলে সামনে ৩৬০ রানের বিশাল লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় সফরকারী শ্রীলঙ্কা । ১০৭ রানে দ্বিতীয় ও ১৪০ রানে তৃতীয় উইকেটের পতনের পর আর কোনো বিপদ হতে দেননি শতরান করা কুশাল মেন্ডিস ‌। এতে করে ড্র হয় ম্যাচটি ।
ব্যাট ও বল হাতে সমান পারফর্ম করায় ম্যাচ নির্বাচিত হন সিকান্দার রাজা ও সিরিজ সেরা নির্বাচিত হন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ।
ফলে দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে জয় পায় শ্রীলঙ্কা।