ভারতের মুসলিম রেস্তোরাঁ সমূহে চালু হয়েছে হালিমের নতুন নাম

প্রতিবেদক || সৈয়দ মেহেদী হাসান আলভী :  

সারাবিশ্বের ভোজনরসিকদের কছে সমাদৃত একটি খাবারের নাম হালিম। গরুর বা খাসির মাংস দিয়ে রান্না করা হালিম কার না ভাল লাগে। কিন্তু এই ঐতিহ্যবাহী খাবারের নাম পরির্বতন করে চালু হয়েছে নতুন নাম। ভারতের কলকাতা, হায়দ্রাবাদ ও মুম্বাই সহ আরো নানা শহরের রেস্তোরাঁ গুলোর মেনু কার্ডে হালিমকে দালিম বলে উপস্থাপন করা হচ্ছে। কলকাতার জমজম, জাইকার মতো বড়ো বড়ো রেস্তোরাঁ সমূহেও হালিমকে দালিম হিসেবে পাওয়া যাচ্ছে। এবিষয়ে একজন সম্ভ্রান্ত মুসলিম সেফ বলেন,” আল্লাহর ৯৯ টি নামের মধ্যে হালিম একটি। যার অর্থ সহিষ্ণু। কুরানে সুরা আল-বাকার ২২৫ নং আয়াত সহ আল-বারাকার আরো ৪ জায়গায় আল্লাহর হালিম নামের উল্লেখ আছে। তাই হালিম কোন খাবারের নাম হতে পারে না। কারন আমরা অনেক সময় বলি হালিম ভালো হয় নি, হালিম নষ্ট হয়ে গেছে, পুড়ে গেছে ইত্যাদি। এতে আল্লাহর নামের মর্যাদা ক্ষুন্ন হয়।” তার বক্তব্য অনুযায়ী যেহেতু হালিম একটি দাল(ডাল) জাতীয় খাবার তাই এর নাম দালিম রাখা হয়েছে। তিনি আরো বলেন বর্তমানে সকলের আরবি ভাষার জ্ঞান বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই এমন একটি সময়ে এসে জেনেশুনে আল্লাহর নামের অমর্যাদা ঘটে এমন কিছু চালু রাখা একান্তই বর্জনীয়। তবে কলকাতা ভোজন ঘরের মতো ঐতিহ্যবাহী রেস্তোরাঁ গুলো হালিমের ঐতিহ্যবাহী নাম চালু রেখেছেন। তারা বলছেন,”মুসলমানদের খোদার নামের সাথে সম্পৃক্ত তাই বলেতো আমরা আমাদের ঐতিহ্যবাহী খাবারের নাম বদলে ফেলতে পারি না। তাহলেতো অনেক কিছুর নামই পরিবর্তন করতে হবে।” অনেকেতো আবার বলেই বসছেন হালিমের নাম পরির্বতন করে দালিম রাখা ওহাবি ইসলামের আগ্রাসনের ফল। তবে হালিমের এই নাম পরির্বতন করাকে ভারতের বিজ্ঞ আলেম সহ সকল স্তরের মুসলমানরা সাদরে গ্রহণ করেছেন।